১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

শিরোনামঃ-

শুরুতে ভোগান্তি টাইগারদের

সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৭

Share Button

স্পোর্টস ডেস্ক-

মাঠে নামার আগে টাইগারদের সতর্কতা শুনিয়েছিলেন তিনি। গতকাল মাঠে দিলেন তার বাস্তবরূপ। বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে মাঠে নামার আগে প্রোটিয়া ওপেনার ডিন এলগার বলেন, নবীন ব্যাটসম্যান এইডেন মারক্রামের সঙ্গে ওপেনিংয়ে বড় জুটি গড়ার আশা তার। কারণ মাত্রই গত সপ্তাহে বড় জুটির কৃতিত্ব দেখিয়েছেন এ দুজন। গতকাল পচেফস্ট্রমে বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে ওপেনিংয়ে ডিন এলগার ও এইডেন মারক্রাম গড়েন ১৯৬ রানের জুটি।  আর দিন শেষে ২৯৮/১ সংগ্রহ নিয়ে টাইগারদের ভোগান্তি বাড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা। গতকাল দিন শেষে ডিন এলগার ১২৮ এবং হাশিম আমলা অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে। চলতি বছর পৃথক চার ব্যাটসম্যানের সঙ্গে ওপেনিংয়ে জুটি গড়তে দেখা গেল ডিন এলগারকে। আর টেস্টের শেষ ১৬ ইনিংসে প্রথমবার ওপেনিং জুটিতে অর্ধশত রানের দেখা পেলো দক্ষিণ আফ্রিকা। গতকাল টেস্ট অভিষেক হয় ২২ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান এইডেন মারক্রামের। অভিষেকে সেঞ্চুরির কীর্তি গড়তে পারতেন তিনি। কিন্তু ব্যক্তিগত ৯৭ রানে উইকেট খোয়ান দক্ষিণ আফ্রিকার ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান। এতে অবশ্য কৃতিত্ব নেই বাংলাদেশ দলের কোনো বোলারের। পার্টনার এলগারের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির খেসারত দেন তিনি রানআউটে। তখন ৯৯ রান নিয়ে সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিলেন এলগার। ১৫২ বলের ইনিংসে এইডেন মারক্রাম হাঁকান ১৩টি বাউন্ডারি। তবে ব্যাট হাতে এলগার পূর্ণ করেন সেঞ্চুরি। ১৭৪ বলে শতক পূর্ণ করেন তিনি। ৩৯ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে এটি ডিন এলগারের নবম শতক। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে খেলতে নামার আগেই ওপেনিংয়ে বড় জুটির কৃতিত্ব দেখান এলগার-মারক্রাম। গত সপ্তাহে দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ম্যাচে টাইটান্স দলের হয়ে ডলফিনসের বিপক্ষে ১৮৪ রানের জুটি গড়েন তারা। পচেফস্ট্রমের সেনওয়েস মাঠে গতকাল টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। যদিও দক্ষিণ আফ্রিকার  অধিনায়ক  ফাফ ডু প্লেসি বলেন, টস জিতলে তিনিও আগে ব্যাটিংই নিতেন। কারণ সেনওয়েস মাঠে পিচটা দেখাচ্ছিল একদিনের উইকেটের মতো। অবশ্য পচেফস্ট্রমের মেঘলা আকাশ দেখে পেসারদের ওপর আস্থা রাখেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। যদিও মাত্র পঞ্চম ওভারে মুশফিক বল তুলে দেন অফস্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে। ২০১২’র নভেম্বরে টেস্ট অভিষেক ডিন এলগারের। আর বাংলদেশের বিপক্ষে এটি তার দ্বিতীয় সিরিজ। ২০১৫’র বাংলাদেশ সফরে তিনি দক্ষিণ আফ্রিকা দলে ছিলেন যথারীতি। চট্টগ্রাম টেস্টের দুই ইনিংসে এলগারের ব্যাট থেকে আসে যথাক্রমে ৪৭ ও ২৮* রান। আর ঢাকা টেস্টের পুরোটাই ভেসে যায় বৃষ্টিতে। গতকাল দিনের শুরুর দুই সেশনে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর বোর্ডে জমা পড়ে সমান ৯৯ রান। পচেফস্ট্রমে দলীয় ৯৯ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। আর চা বিরতিতে যাওয়ার আগে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ছিল ১৯৮/১। দ্বিতীয় সেশনের শেষ ওভারে উইকেট খোয়ান এইডেন মারক্রাম। ব্যক্তিগত ৯৯ রানে আলতো হাতে ড্রাইভ দিলেন ডিন এলগার। বল যায় ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে মুমিনুলের হাতে। সিঙ্গেল নেয়ার আশায় ননস্ট্রাইকার প্রান্ত থেকে দৌড় লাগান মারক্রাম। তবে রান সম্ভব নয় দেখে মারক্রামকে ফেরত পাঠান এলগার। কিন্তু তা আর সম্ভব হয়নি মারক্রামের। মুমিনুলের থ্রো ধরে বোলিং প্রান্তের স্টাম্প ভেঙে দেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সর্বশেষ ইংল্যান্ড সফরে দক্ষিণ আফ্রিকা দলের ছিলেন এইডেন মারক্রাম। যদিও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি তিনি। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকাকে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ শিরোপা এনে দেন অধিনায়ক এইডেন মারক্রাম।

সর্বশেষ খবর

আজকের সর্বাধিক পঠিত

  • No results available

সর্বাধিক পঠিত

  • No results available

দিনপঞ্জি

নভেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী

সম্পাদক ও প্রকাশক-শফিকুর রহমান চৌধুরী (এম এ)

বার্তা সম্পাদক-মাঈন উদ্দিন দুলাল

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদকীয় অফিস :জোড্ডা বাজার,নাঙ্গলকোট, কুমিল্লা-৩৫৮২

বার্তা বিভাগ-০০২১৮৯২৮২৭৬৯০১,ইমো নাম্বার

Email- nangalkottimes24@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET
error: কপি করা থেকে বিরত থাকুন।